দেশে আর কেউ না খেয়ে থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক আপডেট:১৬ অক্টোবর, ২০২০ দেশে আর কেউ না খেয়ে থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর সরকার খাদ্যনিরাপত্তা নিশ্চিত করতে খাদ্য উৎপাদনের ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব প্রদান করেছে, কাজেই এ দেশে আর কোনো দিন কেউ না খেয়ে থাকবে না।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খাদ্যনিরাপত্তাটা যেন নিশ্চিত থাকে এবং প্রতিটি মানুষের ঘরে যেন খাবার পৌঁছায়, সে জন্য হতদরিদ্রের মধ্যে আমরা বিনে পয়সায় খাবার দিয়ে যাচ্ছি এবং এটা আমরা সব সময় অব্যাহত রাখব। একটি মানুষও যেন না খেয়ে কষ্ট না পায়। একটি মানুষও আর গৃহহীন থাকবে না।’

বিশ্ব খাদ্য দিবস-২০২০ উপলক্ষে আজ শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষি মন্ত্রণালয় আয়োজিত আন্তর্জাতিক সেমিনারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে মূল অনুষ্ঠানস্থল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যেকটি মানুষ যাতে চিকিৎসাসেবা পায়, সে জন্য তাদের দোরগোড়ায় আমরা চিকিৎসাসেবা পৌঁছে দিচ্ছি, কেউ পুষ্টিহীনতাতেও ভুগবে না, সে জন্য মায়েদেরও আমরা মাতৃত্বকালীন আর্থিক সাহায্য দিচ্ছি, সদ্যপ্রসূত মা বা যাঁরা ব্রেস্ট ফিডিং করান, তাঁদেরও আমরা আর্থিক সহায়তা দিচ্ছি, বিশাল সামাজিক নিরাপত্তাবলয়ের যে কর্মসূচি রয়েছে, তার মাধ্যমেও আমরা আর্থিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি।’

করোনা পরিস্থিতিতে কৃষি খাতকে প্রাধান্য দেওয়ার প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যখনই বিশ্বে করেনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছে, তখনই আমরা খাদ্য উৎপাদনে সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে খাদ্যের নিশ্চয়তা বিধানের উদ্যোগ নিয়েছি।’

বাংলাদেশের মানুষ যেন কোনো কষ্ট ভোগ না করে সে জন্য তাঁর সরকার নানা প্রণোদনা দিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, প্রণোদনার প্যাকেজ অনুযায়ী কৃষকদের সব থেকে বেশি সুবিধা প্রদান করা হয়েছে। যাতে তাঁরা তাঁদের সাধারণ কাজগুলো (কৃষিকাজ) ভালোভাবে চালাতে পারেন।

Source: www.prothomalo.com

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ