খুলনা বিভাগে করোনা শনাক্ত সাড়ে তিন হাজার ছাড়াল

নিউজ ডেস্ক আপডেট:২৭ জুন, ২০২০ খুলনা বিভাগে করোনা শনাক্ত সাড়ে তিন হাজার ছাড়াল

খুলনা বিভাগে করোনা রোগীর সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার ছাড়িয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল আটটা থেকে আজ শনিবার সকাল আটটা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার হিসাবে খুলনা বিভাগে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২১৯ জন। এ নিয়ে বিভাগে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৬০৪ জন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) মো. মনজুরুল মুরশিদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্যমতে, বিভাগে নতুন করে ৭৫ জন সুস্থ হওয়ায় মোট সুস্থ হয়েছেন ৯১০ জন। বিভাগে সুস্থ হওয়ার হার ২৫ শতাংশ। বিভাগের মোট কোভিড রোগীর মধ্যে শুধু খুলনায় ৪৩ শতাংশ। খুলনায় রোগীসংখ্যা ছাড়িয়েছে দেড় হাজার। যশোর ও কুষ্টিয়াতে রোগীর সংখ্যা অতিক্রম করেছে ৫০০।

খুলনা বিভাগের চুয়াডাঙ্গায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত ১৯ মার্চ। পরবর্তী ৭৩ দিনে এ সংখ্যা দাঁড়ায় ৫০০। ১১ জুন ৮৫তম দিনে এখানে সংক্রমণের সংখ্যা হাজার ছাড়ায়। দেড় হাজার রোগী ছাড়ায় ১৬ জুন, অর্থাৎ ৯০তম দিনে। আর দুই হাজার রোগীর সংখ্যা ছাড়ায় ২০ জুন ৯৪তম দিনে। আড়াই হাজার ছাড়ায় ২২ জুন ৯৬তম দিনে। তিন হাজার ছাড়ায় ২৫ জুন ৯৯তম দিনে। ২৭ জুন (আজ) ১০১তম দিনে রোগী সাড়ে তিন হাজার ছাড়াল।

বিভাগে নতুন সংক্রমিত ২১৯ জনের মধ্যে খুলনা জেলায় ১০৬ জন, সাতক্ষীরায় ৯, যশোরে ৪৪, নড়াইলে ১৯, কুষ্টিয়ায় ৩৮, চুয়াডাঙ্গায় ২ ও মেহেরপুরে ১ জন রয়েছেন। এই সময়ে বাগেরহাট, মাগুরা ও ঝিনাইদহের কারও সংক্রমণ শনাক্ত হয়নি।

সব মিলিয়ে বিভাগের মধ্যে খুলনায় মোট সংক্রমিত হয়েছেন ১ হাজার ৫৫১ জন, বাগেরহাটে ১৬৬ জন, সাতক্ষীরায় ১৫৯ জন, যশোরে ৫১৪ জন, ঝিনাইদহে ১৬৫ জন, মাগুরায় ৯৭ জন, নড়াইলে ১৫৩ জন, কুষ্টিয়ায় ৫৩৫ জন, চুয়াডাঙ্গায় ২০৫ জন ও মেহেরপুরে ৫৯ জন।

বিভাগে এখন পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৫২ জনের। মৃত ব্যক্তির তালিকায় গত ২৪ ঘণ্টায় যশোরে আরও একজন যোগ হয়েছে। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনায় সবচেয়ে বেশি ১৯ জন; যশোরে ৭ জন। কুষ্টিয়া ও নড়াইলে ছয়জন করে। এ ছাড়া মেহেরপুরে পাঁচজন, বাগেরহাটে তিনজন এবং ঝিনাইদহ, মাগুরা ও চুয়াডাঙ্গায় দুজন করে রোগী মারা গেছেন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বিভাগের মধ্যে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন খুলনায় ১৭৪ জন, বাগেরহাটে ৫৬ জন, সাতক্ষীরায় ৪২ জন, যশোরে ১৫৭ জন, ঝিনাইদহে ৭৪ জন, মাগুরায় ৪৪ জন, নড়াইলে ৪৫ জন, কুষ্টিয়ায় ১৭৯ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১১৬ জন ও মেহেরপুরে ২৩ জন।

Source: www.prothomalo.com