কোন তেল ব্যবহার করলে পাকা চুল কাঁচা হবে?

নিউজ ডেস্ক আপডেট:১১ মে, ২০২০ কোন তেল ব্যবহার করলে পাকা চুল কাঁচা হবে?

কম বয়সে চুল পাকা মানে অস্বস্তিকর একটি বিষয়। লোকে বলতে শুরু করে—কুড়িতেই বুড়ি! কারণ কারও কারও কুড়ি বছর বা তার চেয়ে কম বয়সেই মাথায় চুল পেকে যেতে শুরু করে। কিন্তু কেন? গবেষকেরা বলছেন এর কোনো সঠিক কারণ তাঁরা বের করতে পারেননি এখনো। তবে জিনগত কারণেই কম বয়সে চুল পাকে।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, চুল পাকা রোধে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে সরিষার তেল। চুল পাকার সমস্যা দূর করতে সরিষার তেলের ব্যবহার জানার আগে জেনে নিন কোন কোন কারণে অকালে চুল পাকার সমস্যা দেখা দিতে পারে-

* মানসিক চাপ
* ঘুম কম হওয়া
* পুষ্টির অভাব
* শরীরচর্চার অভাব
* ধূমপান
* নিয়মিত মদ্যপান।

অকালে চুল পেকে যাওয়া আটকাতে সবচেয়ে কার্যকর প্রতিকার হলো সরিষা তেল। এই তেল প্রায় সবার রান্নাঘরেই থাকে।
কাঠের ঘানির সরিষার তেলের খোঁজ করুন। খুশকি আর শুষ্ক চুলের যত্নে জন্য এটি ভীষণ উপকারী।

সরিষার তেল উপকারী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। এতে সেলেনিয়াম রয়েছে যা চুলের গোড়া এবং চুলের স্বাস্থ্য বজায় রাখার ক্ষেত্রে একটি বিশাল ভূমিকা পালন করে। এই তেল প্রাকৃতিক ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ, যা চুলের ফলিকল ও চুলের গোড়ার জন্য অপরিহার্য।

সরিষার তেল অ্যান্টি ফাঙ্গাল এবং অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল যা অকালে চুলের পেকে যাওয়া আটকায় এবং আপনার চুলের গোড়ার স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য দুর্দান্ত। এটি চুলের বৃদ্ধির জন্যও উপকারী।

সরিষার তেল কিভাবে ব্যবহার করবেন?
৩ টেবিল চামচ (৫০০ মিলিগ্রাম) সরিষার তেলে ভালো মানের ঠান্ডা নারিকেল তেল (২০০ মিলি), ১ চা চামচ ভাজা মেথি বীজ এবং ১ চা চামচ গুঁড়া কারি পাতা যোগ করুন। এই মিশ্রণ প্রায় এক সপ্তাহের জন্য রেখে তারপর চুল ও চুলের গোড়ায় এই তেল মাসাজ করুন।

এক মিনিট ধরে সরিষার তেল গরম করে আস্তে আস্তে আপনার চুলের গোড়া এবং চুলে তা এটি মাসাজ করতে পারেন।

এই তেল দিয়ে একদিন বাদে বাদে প্রায় ১০ দিন মাসাজ করলে পার্থক্য টের পাবেন। আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী সপ্তাহে দুবার বা তিনবার এই তেল দিয়ে চুলে মাসাজ করতে পারেন।

মাথা ধোয়ার আগে এক ঘণ্টা বা দুই ঘণ্টা তেলটি মাথায় রাখার চেষ্টা করুন। সারারাত মাথায় তেল লাগিয়ে রাখতে পারেন।

Source: www.jagonews24.com

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ