আরব আমিরাতে খেলার অনুমতি পেতে পারেন সাকিব!

নিউজ ডেস্ক আপডেট:৩১ অক্টোবর, ২০১৮ আরব আমিরাতে খেলার অনুমতি পেতে পারেন সাকিব!

আগামী ডিসেম্বরের শেষে সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটি টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতায় খেলার জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অনাপত্তিপত্র চেয়েছেন সাকিব আল হাসান। আজ আকরাম খান জানিয়েছেন, আঙুলের অবস্থা খেলার পর্যায়ে থাকলে অনাপত্তিপত্র দিতে সমস্যা নেই বিসিবির।

অনাপত্তিপত্র দেওয়া প্রসঙ্গে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম সাকিবের সুস্থতার ওপরই জোর দিয়েছেন, ‘সাকিবের আঙুল নিয়ে একটা মেডিকেল প্রতিবেদন পাওয়ার কথা, সেটি ইতিবাচক হলে আমরা ওকে অনাপত্তিপত্র দিয়ে দেব।’

এশিয়া কাপে আঙুলের সমস্যা গুরুতর আকার ধারণ করে সাকিবের। টুর্নামেন্টে ‘সেমিফাইনালে’ রূপ নেওয়া পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ না খেলেই দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হন তিনি। ‌আঙুলে মারাত্মক সংক্রমণ হওয়ায় ঢাকার একটি হাসপাতালে জরুরি অস্ত্রোপচার করে পুঁজ বের করা হয় সাকিবের। পরে তিনি অস্ট্রেলিয়াতে যান আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে। অস্ট্রেলিয়াতেই চিকিৎসকেরা বলেছিলেন, আঙুলে অস্ত্রোপচার করাতে আরও এক বছর অপেক্ষা করতে হবে সাকিবকে। এরপর থেকে অবশ্য পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্যেই আছেন তিনি। তাঁর আঙুলের ব্যথাও নাকি অনেকটাই ভালোর দিকে।


আকরামের কথায় বোঝা গেল, বিসিবি সাকিবের এসব ব্যাপার মাথায় রেখেছে, ‘এক বছরের মধ্যে সাকিব অস্ত্রোপচার করতে পারবে না। আপাতত ব্যথাও নেই। মেডিক্যালি যদি সে ফিট থাকে, তাহলে খেলতে পারবে।’

অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আগে সাকিব জানিয়েছিলেন, অন্তত তিনমাস মাঠের বাইরে থাকতে হবে। তবে অস্ট্রেলিয়া থেকে ফেরার পর তিনি জানিয়েছেন, আঙুলের ব্যথা ভালো হলে এক মাসের মধ্যেও খেলার মাঠে ফিরতে পারবেন তিনি। আকরাম খান জানিয়েছেন, সাকিবের আপাতত ব্যাথা নেই। এমনকি আগামী এক বছরও অস্ত্রোপচার করানো যাবে না তার আঙুলে। তিনি বলেন, ‘এক বছরের মধ্যে সাকিব অস্ত্রোপচার করতে পারবে না। আপাতত ব্যথাও নেই। মেডিক্যালি যদি সে ফিট থাকে, তাহলে খেলতে পারবে।’

আকরাম খান আরও একটি আশাবাদী কথা শুনিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজেই ফিরতে পারেন সাকিব এবং তামিম- দু’জনই। তিনি বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজেই হয়তো তাদেরকে পাবো। এমনই আশা করছি। হয়তো শুরু থেকেই পাবো না, তবে আশা করছি পাবো।’

Source: www.prothomalo.com

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ